এইডস প্রতিরোধে নতুন সাফল্য

এইচআইভি (এইডস) সংক্রমন রোধে গবেষণা আরেক ধাপ এগুলো। গবেষণায় দেখা গেছে, যৌন মিলনের আগমূহুর্তে বা পরবর্তী তিন ঘন্টার মধ্যে নারীর যৌনাঙ্গে এক ধরণের জেল ব্যবহার করে রোধ করা যাবে এইচআইভি সংক্রমন। বানরের শরীরে জেলটি ব্যবহার করে সুফল পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন গবেষকরা।

এইডস

গবেষণা প্রতিবেদনটি ‘সায়েন্স ট্রানস্লেশনাল মেডিসিন’- এ প্রকাশিত হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন এইচআইভি’র বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করতে এটা নতুন পথ বাতলে দিতে পারে।

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন ইন আটলান্টা গবেষণাটি পরিচালনা করেছে। তবে প্রতিষ্ঠানটির মতে এটা এখনো প্রাণীর দেহে পরীক্ষিত বিষয়। মানুষের ক্ষেত্রে এটা কতটুকু কার্যকর তা জানতে আরও পরীক্ষা-নীরিক্ষার দরকার আছে। তাদের মতে এ ধরনের জেলের সফলতা সম্পর্কে এখনো শতভাগ নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে, এই জেল ব্যবহার করে ছয়টি বানরের মধ্যে পাঁচটিকে এইচআইভি সংক্রমন থেকে রক্ষা করা গেছে। এক্ষেত্রে বানরগুলোর যৌনমিলনের আগমূহুর্তে বা পরবর্তী তিন ঘন্টার মধ্যে জেল ব্যবহার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আরও জানতে  পৃথিবীর সবচেয়ে বড় বুকের দুধের অধিকারী জার্মানীর নগ্ন মডেল ‘Beshine’

তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখন পর্যন্ত কনডমই এইচআইভি প্রতিরোধে সর্বোৎকৃষ্ঠ পন্থা। নতুন যে কোন চিকিৎসা পদ্ধতিকে স্বীকৃতি দিতে বড় আকারে ক্লিনিক্যালি পরীক্ষা প্রয়োজন। আর এটা যেহেতু এখনো মানুষের শরীরে প্রয়োগ করে দেখা সম্ভব হয়নি তাই এখনি এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেওয়া যাবে না। আর মানুষের শরীরে পরীক্ষা করার বিষয়টা ঝামেলারও। কোন সুস্থ মানুষ জেনেশুনে এই ঝুকি নিতে চাইবে না।

Leave a Reply