Loading...

বুকের ব্যথা কি কারনে হচ্ছে জেনে নিন

বুকের ব্যথা কি কারনে হচ্ছে জেনে নিন। বুকের ব্যথা এক ধরনে জটিল সমস্যা। এই সমস্যা এতো জটিল হয় যার জন্য কোন ব্যক্তিকে হাসপাতালের জরুরী বিভাগে যেতে হয়। বিভিন্ন কারণে বুকে ব্যথা হয়ে থাকে। প্রথমে দেখতে হবে বুকে ব্যথা আঘাত জনিত কারণে না আঘাত বিহীন কারণে। যদি আঘাত বিহীন কারণে বুকে ব্যথা হয় তাহলে প্রথমে নিশ্চিত হতে হবে হৃদরোগ জনিত কারণে না অন্য কোন কারণে বুকে ব্যথা হয়েছে। এই কারণ নির্ধারনের জন্য রোগীর কাছ থেকে রোগ সম্পর্কে বিস্তারিত ইতিহাস জানতে হবে এবং এর পর শারীরিক ও ল্যাব পরীক্ষা করে সঠিক রোগ নির্ণয় করলে বেশীর ভাগ বুকের ব্যথা ভাল করা সম্ভব।

বুকের ব্যথা

বুকের ব্যথা কি কারনে হচ্ছে জেনে নিন

১. হৃদরোগ জানিত কারণ

২. ফুসফুস জানিত কারণ

৩. মাংশ পেশী জনিত কারণ (Musculoskeletal Pain)

৪. খাদ্যনালী জানিত কারণ

৫. মানসিক কারণ

৬. আর ও অন্যন্য কারণ প্রথমে বুকের ব্যথা কোন স্থানে- বুকের মাঝ খানে, না বাম বা ডান পার্শ্বে, বুকে ব্যথার প্রকৃতি- চাপ চাপ ব্যথা, মনে হয় বুকের মাঝ খানে পাথর বসিয়ে রেখেছে এমন, দমবন্ধ হয়ে আসে এমন বা অনুভূতিহীন যেমন হৃদরোগ জনিত কারণ।

তীব্র ব্যথা, ছুড়ি দিয়ে আঘাত করলে যেমন মনে হয়, পোড়ানো ব্যথা, শ্বাস নেবার সাথে সাথে তীব্র ব্যথা; ফুসফুস জানিত কারণ যেমন নিমোনিয়া, পালমোনারী অ্যামবলিজম, হৃদ যন্ত্রের প্রদাহ। হঠাত্ তীব্র পীড়াদায়ক ব্যথা বুকের সামনে থেকে পিছনের দিকে চলে যায় Aortic Desection (ধমনী ছেঁড়া জনিত কারণ) যদি বুকে ব্যথা পরিশ্রম করলে, দুঃচিন্তা করলে, ঠান্ডা আবাহাওয়ার সর্ষ্পশে আসলে, দুঃস্বপ্ন দেখলে বাড়ে কিন্তু বিশ্রাম নিলে, জিহবার নীচে নাইট্রেট জাতীয় ওষুধ দিলে কমে তাহলে হৃদ রোগ হয়েছে বলে সন্দেহ করা হয়। খাবার পর, শোবার সময়, গরম খাবার, মদ পান করলে এবং খালী পেটে যদি ব্যথা বাড়ে, এ্যান্টাসীড জাতীয় ওষুধ খেলে কমে যায়, তাহলে খাদ্য নালী জানিত কারণ, বুকের ব্যথার সাথে শ্বাস কষ্ট হলে হৃদরোগ, পালমোনারী অ্যামবলিজম নিমোনিয়া নিউমোথোরাক্স হয়েছে বলে সন্দেহ করা হয়।

পরিশ্রম শুরু করার কিছুক্ষণ পর থেকে ব্যথা শুরু হয়, বিশ্রাম নিলেও ব্যথা থাকে, ব্যথা নিরাময় জাতীয় ওষুধ (যেমন Diclofen) জাতীয় ওষুধ থেকে ব্যথা কমে তাহলে মাংশপেশী জনিত কারণ হয়েছে বলে সন্দেহ করা হয়, বুকে ব্যথা, শ্বাসকষ্ট, এছাড়াও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ব্যথা, হঠাত্ কোন শব্দ হলে বুকের ব্যথা বেড়ে যায় ও বুক ধড়পড় করে, কোন মৃত্যুর সংবাদ শুনলে বুকে ব্যথা শুরু হয়, বিভিন্ন ধরনের দুঃচিন্তা করলে বুকে ব্যথা বেড়ে যায় তাহলে মানসিক কারণে হয়েছে বলে সন্দেহ করা হয় । জরুরী বিভাগের বুকের ব্যথা জনিত কারণে যেসব রোগী আসে তার শতকর ১০ ভাগের বেশী আসে মানসিক বা দুংচিন্তা জনিত কারণে। অনেক সময় পেট ব্যথার সাথে সাথে বুকে ব্যথা থাকতে পারে যেমন পিত্তথলীতে পাথর অথবা Pancreatitis, কারণে হয়। যে কারণেই বুকে ব্যথা হোক না কেন রোগী অবশ্যই চিকিত্সকের শরণাপন্ন হতে হবে এবং কিছু গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা যেমন বুকের CXR, ইসিজি জাতীয় পরীক্ষা করে দ্রুত রোগ নির্ণয় করতে হবে এবং সঠিক চিকিত্সা করালে বেশীর ভাগ রোগী ভাল হয়ে যায় এবং অনেক সময় দ্রুত হৃদরোগ নির্ণয় করা যায় এবং সঠিক চিকিত্সা দেওয়া সম্ভব। সমস্ত পরীক্ষা নিরীক্ষা করে কোন রোগের কারণ না পাওয়া যায় সেই ক্ষেত্রে রোগীকে সঠিক উপদেশ দিয়েও বুকের ব্যথা ভাল করা সম্ভব।

Loading...

Facebook Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.