Loading...

ডোপামিন ডায়েট – মুড ভালো রাখুন – ওজন কমান

ডোপামিন একটি হরমোন। দেহের ওজন নির্দিষ্ট মাত্রায় বজায় রাখার জন্যও এ হরমোনটির গুরুত্ব রয়েছে। ডোপামিনকে কর্ম ত্বরাণ্বিতকরণ হরমোনও বলা হয়। খাবারের জন্য ক্ষুধা লাগার ক্ষেত্রে মস্তিষ্কের এই রাসায়নিক পদার্থের ভূমিকা অপরিসীম। ডোপামিনের কারণেই সকালের নাস্তা যখন খাওয়া হয় তখন মিষ্টিজাতীয় খাবার খাওয়ার আগ্রহ নাটকীয়ভাবে কমে আসে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিবিসি।

ডোপামিন ডায়েট – মুড ভালো রাখুন – ওজন কমান

Dopamin Diet

ডোপামিন এমন এক ধরনের হরমোন, যা মানব মস্তিষ্ক ও শরীরে বহুসংখ্যক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। প্রাকৃতিকভাবেই এটি মানব শরীরে উৎপন্ন হয়। সেই সাথে এটি হচ্ছে মস্তিষ্কের রাসায়নিক পদার্থ যা প্রেরণা ও পুরস্কার ও আনন্দের অনুভূতিসহ খাবার খাওয়ার ইচ্ছা নিয়ন্ত্রণ করে। যাকে বলা হয় মস্তিস্কের ‘ফিল গুড নিউরোট্রান্সমিশন’। এটাকে সুখানুভূতির ইঞ্জিনও বলা হয়।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, খাবারের মাধ্যমে ডেপামিন বৃদ্ধি করা সম্ভব হলে দেহের ওজন নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি মুডও ভালো রাখা সম্ভব।
কী রয়েছে ডোপামিন ডায়েটে? এক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞরা কয়েকটি খাবারের তালিকা দিয়েছেন। অতি সাধারণ এ খাবারগুলোই ডোপামিন বৃদ্ধি করতে পারে।

এগুলোর মধ্যে রয়েছে
–দুধ, পনির ও দইয়ের মতো দুগ্ধজাত সামগ্রী
–গরু ও মুরগির অপ্রক্রিয়াজাত খাবার
–ওমেগা থ্রি-সহ মাছ
–ডিম
–ফলমূল ও সবজি, যেমন কলা
–কাজুবাদাম এবং আখরোট
–ডার্ক চকলেট

এ উপাদানগুলো ছাড়াও অনলাইনে খোঁজ করলে ডেপামিনযুক্ত খাবার তৈরির রেসিপি পাওয়া যায়।
এছাড়া ডেপামিন বৃদ্ধির জন্য খাবারের পাশাপাশি কিছু খাবার ও পানীয় বর্জন করার কথা বলা হয়। এগুলোর মধ্যে রয়েছে অ্যালকোহল, ক্যাফেইন ও পরিশোধিত চিনি।

Loading...

Facebook Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.