Loading...

Master Card মাস্টার কার্ড করে ফেলুন সাথে থাকছে ২৫ ডলার

মাস্টার কার্ড করে ফেলুন সাথে থাকছে ২৫ ডলার (Free Payoneer Card)

পেওনার মাষ্টার কার্ড কি?

পেওনার মাষ্টার কার্ড হচ্ছে ইউএস পেমেন্ট সার্ভিস ডিপার্টমেন্টের একটি ভার্চুয়াল ব্যাংক হিসাব এবং এটি ইউএস ডলার ধারন করে।২০০৭ সাল থেকে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২০০টি দেশে এটি ব্যবহ্রত হচ্ছে। ইউএস পেমেন্ট সার্ভিস ডিপার্টমেন্ট তাদের ব্যবসা প্রসারের জন্য প্রতিটি ফ্রি পেওনার কার্ডের (Free Payoneer Card) সাথে ২৫ ডলার ফ্রি ব্যালেন্স দিচ্ছে, তবে এই অফার একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য।
১৮ বছর বা তার বেশী বয়সী বৈধ যেকোন নাগরিক এই কার্ডটির জন্য আবেদন করতে পারেন। তবে অবশ্যই মনে রাখবেন এবং আপনাদের প্রতি অনুরোধ থাকবে, যারা অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং এর সাথে জড়িত নন, তারা এপ্লাই করবেন না। লাভ হবে না। শুধু শুধু কার্ড এনে দেশের ক্ষতি করবেন না ও রেপুটেশন নষ্ট করবেন না। কারন কার্ডে টাকা লোড করতে হলে অবশ্যই কোন না কোন মার্কেটপ্লেসে কাজ করতে হবে এবং সেখান থেকেই টাকা লোড করতে হবে। এবং কার্ডটি যখন লোড করবেন তখন কার্ডের ফি কেটে নিবে।

এই মাষ্টার কার্ডটি আপনি যে যে কাজে ব্যবহার করতে পারবেন???

• অনলাইন শপিং।
• অনলাইন বিল উত্তোলন ও প্রদান।
• অনলাইনে অর্জিত টাকা উত্তোলন।
• বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং সাইটে অর্জিত টাকা উত্তোলন।
• অনলাইনে মিউজিক সিডি, ল্যাপটপ, সফটওয়্যার, জুয়েলারী, বই, বিভিন্ন গিফট, ডোমেইন স্পেসসহ আরো অন্যান্য অনলাইন শপিং এর কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।
• ফেসবুক, টুইটার, গুগুল প্লাস, গুগুল, ইয়াহু সহ অন্যন্য সকল সামাজিক যোগাযোগ সাইটে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন প্রচারের কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।
• ওডেক্স, ফ্রিল্যান্সার সহ অন্যান্য জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং সাইটে টাকা উত্তোলন ও বিল প্রদানের জন্য ব্যবহার করতে পারবেন।
পেওনার মাষ্টার কার্ড দিয়ে বাংলাদেশে কিভাবে টাকা উত্তোলন করবেন?
বাংলাদেশের ডাচ-বাংলা ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড-চার্টাড ব্যাংক ও জনতা ব্যাংক কিউ-ক্যাশ এটিএম বুথ থেকে অন্যান্য মাষ্টার কার্ডের মত টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

Free Payoneer Card
পেওনার মাষ্টার কার্ডের জন্য কিভাবে আবেদন করবেন?

ধাপ-১: সাইনআপ
সাইনআপ করার জন্য নিচের বাটনটিতে ক্লিক করুন এবং ওপেন করে সাইনআপ বাটনের উপর মাউসের ডান বোতাম চেপে “ওপেন লিংক ইন নিউ উন্ডোতে ক্লিক করে যথাযথ তথ্য প্রদান করুন।

Payoneer Sign Up
এরপর ধাপ-২ ও ধাপ-৩ এর তথ্যগুলো যথাযথ প্রদান করে চেকবক্স গুলোতে টিক মার্ক দিয়ে ওকে করুন।
রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শেষ হলে ৪৮ ঘন্টার মধ্য জানিয়ে দিবে আপনাকে ওরা মাষ্টার কার্ড দিবে কিনা । যদি এ্যাপ্রোভ হয় তবে আমেরিকায় থাকলে দশ দিন ও আমেরিকার বাইরে ২৫ দিনের মধ্য পোষ্ট অফিসের মাধ্যমে পাঠিয়ে দিবে । আমি অবশ্য ২৫ দিনের মাথায় পেয়েছি । পোষ্টমাষ্টার কে বলে রাখলে ভাল হবে।
কার্ডটি হাতে পেলে Payoneer  এ্যাকাউন্ট লগাঅন করুন এবার কার্ড এ্যাকটিভ ক্লীক করুন। কার্ডের সাথে কাগজে দিক নির্দেশনা দেয়া থাকবে কিভাবে চালু করতে হবে। তবু বলছি আগে কার্ড নাম্বার প্রবেশ করুন তারপর আপনার পছন্দ মত চার সংখ্যার পিন নাম্বার দিন এবার চালু বাটনে ক্লীক করলেই কার্ড চালু। পিন নাম্বার মনে রাখা জরুরী। এবার আপনার ড্যাশবোর্ডে চালু হয়েছে কিনা কনর্ফাম ম্যাসেজ আসবে ।এই কার্ড দিয়ে পূথিবীর যেকোন ডেভিড বুথ থেকে টাকা উঠানো যাবে।

Loading...
তবে মনে রাখবেন, এই $২৫ বোনাস পেতে হলে আপনাকে পেওনিয়ার কার্ডটিতে $১০০ লোড করতে হবে। এই লোড আপনি যেকোনো সাইট যেগুলো পেওনিয়ারের সাথে লিঙ্ক আছে সেই সাইট থেকে করতে পারবেন, যেমন- ওডেস্ক, ইল্যান্স, ফ্রিল্যান্সার, ফাইভার, রবোফরেক্স ইত্যাদি। (এরকম আরও অনেক সাইট আছে)।

Red-Sign-Up-Now-Button

Facebook Comments

7 Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.