Loading...

ডায়াবেটিসে প্রতি ৭ সেকেন্ডে বিশ্বে একজন মারা যাচ্ছে

বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে ডায়াবেটিস এখন এক মহামারী রোগ। বিশ্বে প্রতি ৭ সেকেন্ডে একজন মানুষ ডায়াবেটিসের কারণে মৃত্যুবরণ করছে এবং প্রতি ১২ জনে একজন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। অথচ দুই দশক আগেও ডায়াবেটিস ছিল খুবই স্বল্প পরিচিত একটি রোগ। অথচ আজকের দিনে বিশ্বের বহুল আলোচিত স্বাস্থ্য সমস্যার একটি ডায়াবেটিস।

Diabetes Kills Every Single Person in 7 Seconds

গতকাল ( 14 November 2015) বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস (World Diabetes Day) উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বক্তারা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সাথে বাংলাদেশেও বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালিত হয়েছে। দিনটি উপলক্ষে রাজধানীসহ সারাদেশে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ছিল ‘স্বাস্থ্যসম্মত খাবারই ডায়াবেটিস প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের অন্যতম উপায়’।

World Diabetes Day
World Diabetes Day
দিবসটি উপলক্ষে রাজধানীর  (BIRDEM)হাসপাতাল মিলনায়তনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সফলতার সাথে মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোল-এমডিজি (MDG – Millennium Development Goals) অর্জনে সক্ষম হয়েছে। আগামীতে সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল (Sustainable Development Goal) -এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে হলে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। এজন্য দেশের মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু ডায়াবেটিস এক্ষেত্রে প্রধান বাধা। এটা মহামারী আকারে দেখা দিলে এসডিজি অর্জন কঠিন হয়ে পড়বে। তাই ডায়াবেটিস প্রতিরোধে সকলকে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ল্যাবরেটরি সার্ভিস ডিভিশনের পরিচালক প্রফেসর ডা. শুভাগত চৌধুরী। তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্বে ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় ৪০ কোটির মতো এবং ২০৩০ সালের মধ্যে এটা ছাড়িয়ে যাবে ৫০ কোটিতে। বাংলাদেশে সত্তরের দশকে ডায়াবেটিস-এর প্রবণতা ছিল মাত্র দুই শতাংশের মতো, বর্তমানে ঢাকা শহরেই প্রায় ১০ শতাংশ ছুঁয়েছে।

বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির সহ-সভাপতি মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যাপক এ আর খানের সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ডায়াবেটিক সমিতির মহাসচিব মো. সাইফ উদ্দিন, বারডেম হাসপাতালের মহাপরিচালক প্রফেসর ডা. নাজমুন নাহার।

এদিকে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস উপলক্ষে সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (BSMMU) এন্ডোক্রাইনোলজি (Endocrinology)(ডায়াবেটিস ও হরমোন) বিভাগ একটি শোভাযাত্রার আয়োজন করে। সকাল ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বি ব্লকের সামনের বটতলা থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ডা. কামরুল হাসান খান। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন অংশ প্রদক্ষিণ করে বহির্বিভাগের ১ নম্বর ভবনে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। দিবসটি উপলক্ষে শোভাযাত্রা ছাড়াও সুস্থ জীবন-যাপন এবং ডায়াবেটিস বিষয়ে রোগীদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, গর্ভকালীন ডায়াবেটিসের হার আমাদের দেশে উন্নত বিশ্বের তুলনায় অনেক বেশি। নতুন প্রজন্মের ছেলে-মেয়েদের মধ্যে মেদ ভুঁড়ির হার বাড়া এবং কায়িক পরিশ্রমের প্রতি অনীহার কারণে ডায়াবেটিসে আক্রান্তের হার দিনে দিনে বাড়ছে। এভাবে ক্রমশ ডায়াবেটিস বাড়তে থাকলে শুধু ডায়াবেটিসের কারণেই দেশের অর্থনৈতিক ভারসাম্য মারাত্মক চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হবে। ডায়াবেটিস এমন একটি রোগ যার কারণে দেহের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গের কার্যক্ষমতা হ্রাস পেয়ে হার্ট অ্যাটাক, কিডনি ফেইলিউর, অন্ধ হয়ে যাওয়া, পায়ে পচন, এমনকি পা কেটে ফেলতে হতে পারে। খাদ্যাভ্যাস, জীবনযাত্রার পরিবর্তনের দ্বারা প্রায় ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ডায়াবেটিস প্রতিরোধ সম্ভব। ইন্টারন্যাশনাল ডায়াবেটিস ফাউন্ডেশন (আইডিএফ) এর তথ্যমতে, বর্তমানে সারা দুনিয়ায় ডায়াবেটিস আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৪১৫ মিলিয়ন। এই সংখ্যা ২০১৪ সালে ছিল ৩৮৭ মিলিয়ন। আক্রান্তের এই সংখ্যা ২০৪০ সালে ৬৪২ মিলিয়নে পৌঁছতে পারে। ডায়াবেটিসের ঝুঁকি রয়েছে বিশ্বের এমন ১০টি দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম রয়েছে। এদেশের ডায়াবেটিস আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৭ দশমিক ১ মিলিয়ন। ২০১৪ সালে এই সংখ্যা ছিল ৫ দশমিক ৯ মিলিয়ন। এদিকে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস উদযাপন করে ডায়াবেটিসের বিরুদ্ধে এক ধরনের যুদ্ধ ঘোষণা করেছে ইনসুলিন প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান নভো নরডিস্ক (novonordisk.com)। দিবসটি উপলক্ষে তারা কর্মসূচির আয়োজন করে।

You can read more Details About Diabetes in Women in here: http://www.diabeteszone.org/diabetes-in-women

Loading...

Facebook Comments

2 Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.