ত্বকের যত্নে এমসিডি করান

ত্বকের যত্নে এমসিডি (Microdermabrasion)

মানুষ সৃষ্টিকর্তার অসাধারণ সৌন্দর্যদিপ্ত সৃষ্টি। আর এই সৌন্দর্যকে ধরে রাখার দায়িত্ব আপনার আমার সকলের দায়িত্ব। সুস্থ ও সতেজ ত্বক সৌন্দর্যকে বাড়িয়ে দেয় বহুগণ। তাই আজ ত্বকের যত্নে চিকিত্সা প্রযুক্তির অভিনব একটি চিকিত্সা পদ্ধতি মাইক্রোডার্মাব্রাশন নিয়ে আলোচনা করবো।

Microdermabrasion

মাইক্রোডার্মাব্রাশন

মাইক্রোডার্মাব্রাশন

মাইক্রোডার্মাব্রাশন একটি কম ঝুঁকিপূর্ণ, সহজ ও দ্রুত নন-ইনভেসিত ত্বক রিসারফেসিং পদ্ধতি। যা ত্বকের বহি:স্তরে আলতো ঘর্ষণ করে মৃত ত্বক কোষগুলোকে উজ্জীবিত করে দাগহীন, মসৃণ ও উজ্জল ত্বক উপহার দেয়। মাইক্রোডার্মাব্রাসনকে সংক্ষেপে এমসিডি বলা হয়।

মাইক্রোডার্মাব্রাশন  হ্যান্ডপিস ও স্ফটিক

মাইক্রোডার্মাব্রাশন  হ্যান্ডপিস ও স্ফটিক

মাইক্রোডার্মাব্রাশন হ্যান্ডপিস ও স্ফটিক

মাইক্রোডার্মাব্রাশন পদ্ধতিতে হ্যান্ডপিস ও স্ফটিক ব্যবহার করা হয়। যার ভ্যাকুরাম চাপ ও গতি ত্বকের সংবেদনশীলতা এবং সহনশীলতার উপর নির্ভর করে স্থায়ী হয়। এ প্রক্রিয়াটির জন্য ৫ থেকে ১০ মিনিট সময় লাগে। সর্বাধিক কার্যকারিতার জন্য একাধিক সেশন ও রক্ষনাবেক্ষনের প্রয়োজন আছে। অনুকূল ফলাফলের জন্য ২ থেকে ৪ সপ্তাহ পুনরাবৃত্তি করতে হয়। ডার্মাটোলজিস্টগণ ৫ থেকে ৭টি সেশনের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। ত্বকের প্রধান শত্রু সূর্য। যেকোন ঋতুতেই ত্বককে রোদের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে সুরক্ষা রাখা খুবই জরুরী। তাই মাইক্রোডার্মাব্রাশনের পরে ৪০ থেকে ৫০ এফপিএফ যুক্ত সানস্ক্রিণ ব্যবহার করতে হবে। এই অভিনব চিকিত্সা পদ্ধতিটি সূক্ষ্ম বলিরেখা, রোদেপোড়া কালচে দাগ, অগভীর ব্রণের দাগ, ব্লাক হেডস, হোয়াইট হেডস হ্রাস করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে। মুখ, হাত, গলা, পিঠের ত্বকের উপর এই পদ্ধতি বিশেষ কার্যকর ভূমিকা রাখে। গবেষণায় দেখা গেছে মাইক্রোডার্মাব্রামনের পরে ত্বকের ময়েশ্চারাইজার শোষণ ক্ষমতা বেড়ে যায়।

এ বিষয়ে আরও জানতে  হাতের তালুর খসখসে ভাব দূর করার উপায়

চর্ম রোগের চিকিত্সা

যাদের ত্বক সংবেদনশীল ও নাজুক তাদের এমসিডি করার সাথে সাথে ত্বকে হয়ত লালচে দানা দেখা দিতে পারে। এনিয়ে দুশ্চিন্তার কিছু নেই। এটি সাময়িক এবং ২৪ ঘন্টার মধ্যে এ সমস্যাটি আপনাআপনি সেরে যাবে। ত্বকে যদি ব্রণের গভীর ক্ষত, রোজাসিয়া, ডার্মাটাইটিস, হারপিস এর মতো চর্মরোগ থাকে সেক্ষেত্রে চর্মরোগ বিশেষজ্ঞগণ চর্ম রোগের চিকিত্সা করার পর এমসিডি করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

লেজার স্কিন সেন্টার

শীত সমাগত। ঘুম থেকে উঠলেই দেখা যায় প্রকৃতি কুয়াশাচ্ছন্ন, আর সবুজ ঘাসে জমে আছে বিন্দু বিন্দু শিশির। শীতকাল শুরুর এই সময়টা উপভোগ্য হলেও দেখা দিতে পারে বাড়তি কিছু স্বাস্থ্য সমস্যা। শুষ্ক আবহাওয়ার সাথে কম তাপমাত্রার সংযোজন আর ধূলাবালির উপদ্রব, সব মিলিয়েই সৃষ্টি করে কিছু স্বাস্থ্যগত সমস্যা। তার জন্য প্রয়োজন কিছু সতর্কতা। বিশেষ করে যাদের ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ। তাই শীতে আপনার সৌন্দর্য চর্চায় এমসিডি যোগ করতে পারে। এটি সাশ্রয়ী ও অন্যান্য স্কিন রিসারফেসিং-এর তুলনায় অনেক কম খরচে করা সম্ভব। এটি সকল ধরণের ত্বকের ও রঙের উপর কার্যকর বলে দেশে ও বিদেশে নারী পুরুষ সকলের কাছে জনপ্রিয়তা দিনে দিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর যেকোন ভাল লেজার স্কিন সেন্টারে এই সুবিধাটি পেতে পারেন।

Leave a Reply