Loading...

মানসিক চাপে ওজন বাড়ে

সুস্থ দেহের সাথে যেমন সুস্থ মনের যোগাযোগ আছে ঠিক তেমনি মনের অসুখের সাথেও যোগ রয়েছে দেহযন্ত্রের। এ বাস্তবতায় আমাদের অনেকের মাঝেই যে ধারণাটি প্রচলিত সেটি হলো, মনের কোনো ব্যামো হলে বা মানসিক চাপের মধ্যে থাকলে সেটি পক্ষান্তরে আমাদের স্বাস্থ্যকেও বাহ্যিকভাবে খারাপ করে দেয় এবং এ অবস্থায় তাদেরকে হয়তো তুলনামূলক বেশি রোগা দেখায়।

 

মানসিক চাপে ওজন বাড়ে

ওজন

যদিও সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষকরা এ বিষয়ক যে গবেষণাটি করেছেন তাতে এর উল্টোটাই দাবি করা হয়েছে। নারী-পুরুষ উভয়কে এই গবেষণা জরিপে অন্তর্ভূক্ত করা না হলেও মেয়েদের ওপর পরিচালিত জরিপ এবং সংগৃহিত তথ্য ও উপাত্তের বিশ্লেষণ থেকেই এমনটা দাবি গবেষকদের। তারা বলছেন, সাধারণত যেসব নারী স্থায়ী কিংবা ক্ষণস্থায়ী কোনো স্নায়বিক চাপে ভোগেন তাদের মাঝে ওজন হূাসের চাইতে বরং ওজন বৃদ্ধির প্রবণতাই বেশি।

বিশেষ করে অন্য সময়ের তুলনায় মানসিক চাপে থাকা অবস্থায় নারীদের শরীরে চর্বিযুক্ত খাবারের প্রভাব বেশি পড়ে বলে দাবি করেছেন গবেষকরা। তাদের মতে, মানসিক কোনো অস্থিরতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন এমন কোনো নারী যদি মাত্র এক বেলাও চর্বিযুক্ত কোনো খাবার খান তাহলে বছরে তাদের ওজন পাঁচ কেজি পর্যন্ত বেড়ে যেতে পারে। এর কারণ হিসেবে গবেষকরা বলেন, যেসব নারী নানা ধরনের মানসিক চাপে ভোগেন তারা মানসিক অস্থিরতার সময়টিতে সহজ ও স্বাভাবিক ভাবে খাদ্যের পরিপাক চালিয়ে যেতে পারেন না এবং এ সময় তাদের খাদ্যের বিপাক প্রক্রিয়ার গতিও তুলনামূলক ধীর হয়ে পড়ে।

শুধু তাই নয়, গড়পরতা ৫৩ বছর বয়সী ৫৮ জন নারীর ওপর পরিচালিত এই গবেষণায় দেখা যায় এ ধরনের মানসিক অবস্থায় নারীদের খাদ্য গ্রহণের পরিমাণও কিছুটা বেড়ে যায়। তবে বর্ধিত এই খাদ্য গ্রহণের বিপরীতে তাদের ক্যালরী কম খরচ হয়। আর এভাবেই মানসিক চাপের সময়ে ক্রমে ক্রমে বাড়তি মেদ জমা হতে থাকে শরীরে।

Loading...

Facebook Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.