Loading...

ব্রণের দাগ দূর করবেন যে মাস্ক দিয়ে (Acne Preventing Mask)

ব্রণের সমস্যায় কম-বেশি সবাই ভুগে থাকে। অনেক সময় ব্রণ কমে গেলেও দাগগুলো ঠিকই থেকে যায়। জেনে নিন ব্রণের দাগ দূর করার জন্য কয়েকটি মাস্ক। 

 

ব্রণের দাগ দূর করবেন যে মাস্ক দিয়ে (Acne Preventing Mask)

 
* একটি বাটিতে ১ টেবিল চামচ কফি পাউডার এবং হাফ টেবিল চামচ মধু একসাথে মিশিয়ে নিয়ে পরিষ্কার মুখে লাগিয়ে নিয়ে হবে। ১৫ মিনিট পর স্ক্রাবিং  করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিয়ে হবে। কফি পাউডার আমাদের মুখের মরা চামড়া দূর করে এবং ব্রণের দাগ দূর করতে সাহায্য করে। মধুতে পিম্পলের (Pimple) ব্যাকটেরিয়ার সাথে লড়াই করে। এছাড়াও মধুতে ন্যাচারাল ব্লিচিং এজেন্ট রয়েছে, যা ব্রণের দাগ দূর করে।
 
Anti-Acne-Mask
Anti-Acne-Mask
 
* হাফ টেবিল চামচ সুইট আলমন্ড অয়েল (Sweet Almond Oil) এবং লেবুর রস ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে তা মুখের ত্বকে লাগিয়ে নিয়ে হবে। ৩০ মিনিট পরে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। সুইট আলমন্ড অয়েল স্কিনের ড্রাইনেস ও ব্রণের দাগ দূর করে ভ লেবুর রসে স্কিন লাইটেনিং এজেন্ট (Skin Lightening Agent) রয়েছে, যা ব্রণের দাগকে হালকা করতে সাহায্য করে।
 
* একটি বাটিতে ১ চা চামচ চন্দন পাউডার, হাফ চা চামচ গোলাপজল মিশিয়ে নিন। আপনার স্কিন ড্রাই (Dry Skin) হলে গ্লিসারিন (Glycerin) যোগ করতে পারেন। এই মিশ্রণটি ২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন এবং ধুয়ে ফেলুন। চন্দনে রয়েছে অ্যান্টি মাইক্রোভাল যা ব্রণের দাগ দূর করে। এটি স্কিনকে উজ্জ্বল করে তোলে।  গোলাপজল স্কিনের পি এইচ (PH) লেভেলকে ব্যালেন্স করে।
 
* একটি টমেটো নিয়ে এর পাল্প (Pulp) বের করে নিন। এর সাথে হাফ চা চামচ লেবুর রস এবং মধু যোগ করুন। এই মিশ্রণটি ব্রণের দাগের উপর লাগিয়ে সারারাত রেখে দিন। সকালে ধুয়ে ফেলুন।
 
এই মাস্কগুলো সপ্তাহে ২-৩ দিন ব্যবহার করুন। মাস্কগুলো ব্যবহারের আগে মুখ অবশ্যই পরিষ্কার করে নেবেন। মাস্কগুলো ব্যবহারের পরে টোনার এবং ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

Facebook Comments

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.