খুব সহজে শরীরের ওজন বাড়ান

খুব সহজে শরীরের ওজন বাড়াতে চাইলে এখনি দেখে নিন কত সহজে আপনি নিজের ওজন বাড়াতে পারবেন। ওজন বাড়ানো কোন ব্যাপার না, চাই শুধু একটু ইচ্ছা।

শরীরের ওজন বাড়ান

শরীরের ওজন বাড়ান

অনেকেই আছেন অনেক খেয়ে এবং ব্যায়াম করেও ওজন বাড়াতে পারেন না। কিভাবে ওজন বাড়াবেন, মো.মনিরুজ্জামানকে জানালেন ফিটনেস প্রশিক্ষক জহুরুল ইসলাম এবং পুষ্টিবিদ তৃপ্তি চৌধুরী। 

যাঁরা অনেক খাওয়ার পরও ওজন বাড়াতে পারেন না, তাঁদের হার্ডগেইনার বলে। হজমশক্তি সবার এক না। এটা জন্মগত। যাঁদের হজমশক্তি খুব বেশি, খাবার খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁদের ক্যালরি বার্ন হয়ে যায়, পুষ্টি গায়ে লাগে না। আবার যাঁরা একটু খেলেই মোটা হয়ে যান, তাঁদের হজমশক্তি খুব কম। খুব কম বা বেশি দুটোই খারাপ, ভালো হলো মাঝামাঝি থাকা।

হজমশক্তি ভালো করার উপায় কী?

ব্যায়াম

ব্যায়াম

আমাদের শরীর ঘণ্টায় নির্দিষ্ট পরিমাণ ক্যালরি বার্ন করে। সাধারণত কিছু না করা অবস্থায় ঘণ্টায় ৭৫ ক্যালরি বার্ন হয়। একজন সুস্থ ও পূর্ণবয়স্ক মানুষের দিনে ১৮০০ ক্যালরি পরিমাণ খাবার প্রয়োজন। শরীর নির্দিষ্ট সময় (তিন ঘণ্টার কিছু কম সময়) পর্যন্ত নির্দিষ্ট পরিমাণ ক্যালরি গ্রহণ করতে পারে। বেশি হলে শরীর স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাকি ক্যালরিগুলো ফ্যাট হিসেবে শরীরে জমা করে রাখবে।

কারণ একবার খেলে সেটা হজম হতে আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা লাগে। ঘুম ছাড়া বাকি সময় আমাদের সারা দিনের ক্যালরি গ্রহণ করতে হবে।

প্রতি আড়াই বা তিন ঘণ্টা করে ছয়বারে ৩০০ ক্যালরি করে খেলে ১৮০০ ক্যালরি পূর্ণ হয়।

৩০০ ক্যালরি খাবার তিন ঘণ্টায় হজম হয়ে গেলে তিন ঘণ্টা পর সুস্থ ও স্বাভাবিক শরীর আবার নতুন খাবারের অপেক্ষায় থাকবে।

এ বিষয়ে আরও জানতে  ওজন কমাতে ৫ পানীয়

খুব সহজে শরীরের ওজন বাড়াতে যা করবেন

ওজন বাড়াবেন

ওজন বাড়াবেন

* না খেলে প্রথমে শরীরে সঞ্চিত চর্বি বার্ন করে শক্তি জোগাবে। ধীরে ধীরে পেশি বার্ন শুরু করবে। এভাবে শরীর ক্ষয় হবে এবং মানুষ আস্তে আস্তে রোগা হবে।

* আপনি তিন ঘণ্টায় ৩০০-র বদলে ৩০০+ ক্যালরি গ্রহণ করেন, তাহলে আপনার শরীর তিন ঘণ্টায় ৩০০ ক্যালরি বার্ন করে শরীরের শক্তি জোগাবে। বাকি ক্যালরি সোজা ফ্যাট হিসেবে জমা হতে শুরু করবে।

* যদি তিনবার খান, তাহলে গড়ে পাঁচ-ছয় ঘণ্টা পর পর ৬০০ ক্যালরি করে খেতে হবে। তিন ঘণ্টায় ৩০০ ক্যালরি ঠিকমতো হজম হবে, বাকি খাবার ঠিকমতো হজম না হয়ে ফ্যাট হতে শুরু করবে এবং এই পরের তিন ঘণ্টা শরীর দুর্বল লাগতে শুরু করবে।

* শরীর যখন দেখবে আপনি তিন ঘণ্টা পর আবার খাবার দিচ্ছেন না, তখন সে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখতে শক্তি সঞ্চয় করতে শুরু করবে এবং সেটা ফ্যাট হিসেবে।

* খাওয়া হজম হওয়া মাত্রই তিন ঘণ্টা পর পর খাবার খান, তাহলে শরীরের আর বাড়তি কষ্ট করে অভ্যন্তরীণ শক্তি সঞ্চয় করতে হবে না; অর্থাৎ ফ্যাট জমাবে না। অর্থাৎ হজমশক্তি ভালো রাখতে নিয়মিত অল্প অল্প করে বারবার খেতে হবে।

ওজন বাড়াতে কী কী খাবেন?

ব্যালান্সড খাবার খাবেন। প্রতি বেলায় প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট এবং ফ্যাটের সমন্বয় থাকতে হবে। মোটামুটি ৪০ শতাংশ প্রোটিন, ৩০ শতাংশ কার্বোহাইড্রেট, ৩০ শতাংশ ফ্যাট হতে হবে। মাছ, মাংস, ডিম, দুধ, টক দই, লাল চালের ভাত, আটার রুটি, শাকসবজি, ফলমূল, প্রচুর পানি পান করুন। প্রথম দুই সপ্তাহে কমপক্ষে ২৫০০ ক্যালরি খাবেন। মেপে খেতে হবে না। প্রোটিন যেন যথেষ্ট হয়। প্রতি দুই ঘণ্টা পর পর কিছু না কিছু খাবেন। সেই সঙ্গে প্রচুর পানি।

এ বিষয়ে আরও জানতে  অনিদ্রা দূর করার ১০ উপায়

ওজন বাড়ানোর জন্য কী কী খাবেন না?

সাদা ভাত, গোল আলু, ময়দা, চিনি, সোডিয়াম, অ্যালকোহল, ক্যাফেইন, নিকোটিন, প্রসেসড ফুড, ক্যান ফুড, তৈলাক্ত ও মসলাজাতীয় খাবার।

ওজন বাড়ানোর জন্য কী ধরনের ব্যায়াম করবেন?

জিমে গিয়ে খুব হার্ড ব্যায়াম করতে হবে। ওয়েট বেশি, কৌশলগত দিক কম। সপ্তাহে তিন দিন (এক দিন পর পর) ব্যায়াম করবেন। প্রতিটা সেশন ৬০ থেকে ৭৫ মিনিটের মধ্যে রাখবেন। এমন সব ব্যায়াম করতে হবে, সেসব ব্যায়ামে একই সঙ্গে একাধিক পেশিতে চাপ পড়ে। এগুলোকে ‘কোর’ বা ‘কম্পাউন্ড’ ব্যায়াম বলে। কেননা এরপর শরীর ক্লান্ত হবে। তখন ব্যায়াম চালিয়ে গেলে পেশি ক্ষয় হবে। জিম শুরুর দুই ঘণ্টা আগে খাবেন এবং শেষ হওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যে অবশ্যই আবার খাবেন। যতটা সম্ভব বিশ্রাম নেবেন।

ঘুম কেন জরুরি

প্রতিদিন ৮-৯ ঘণ্টা ঘুমান। মানুষ ঘুমের মধ্যেই বাড়ে।

আরো অনেকে খুজেছে

মোটা হওয়ার খাদ্য তালিকা, bangali helth, মোটা হওয়ার সিরাপের নাম, বডি বিল্ডার ঔষধ, মোটা হওয়ার হারবাল ঔষধ, কিভাবে মোটা হওয়া যায়, মো হওয়ার সিরাপ, কি খেলে মোটা হতে পারি, সাসথ কীভাবে হবে, ওজন বাড়বে কিভাবে, মোটা হওয়ার ট্যাবলেট এর নাম, বডি বানানোর ঔষধ, মোটা হওয়ার হামদাদ ভিটামিন এর নাম, মোটা বান, মোটা হওয়ার হারবাল ঔষধের নাম, মোটা না হয়ে ওজন বাড়ানোর উপায়, মোটা হব কি ভাবে, মোটা হবার উপায়, কীভাবে ওজন বাড়ানো যায়, শরির ভাল রাখার জন্য কি খাদ্য দরকার, ১ মাসে সাস্থ বান হওয়া যায় কি ভাবে, হারবাল ঔষধ ভাল না খারাপ, স্বাস্থ্য বাড়াতে হোমিওপ্যাথি, স্বাস্থবান হতে কি করবো, স্বাস্থ বাড়ায় এমন ঔষদ, স্বাস্ত মোটা করার জন্য খাবার ও নিয়ম, সু সাস্থের জন্য কি ঔষুধ খাব, সাস্থ ভালো করতে গেলে কী ওষুধ খেতে হবে, শরীর মোটা করার ঔষধ, শরীর বৃদ্ধি করার উপায়, শরীর দুর্বল কাটিয়ে মোটা এবং বডি বড়াতে হলে কোন গাছের ঔষধ খাব, শরিলের ওজন কমে গেলে কি রোগ হতে পারে, ১৫ দিনের মধেয শরীরের বারানোর উপায়, মুখের স্বাথ্য ভালো করার উপায়, কি খেলে বডি বারে, কি খেলে চেহারা বারে, কি খাইলে সরিল হয়, কি খাইলে মুখে ও গালে মাংস লাগবে, কি ঔষধ খেলে কয়েক দিনের মধ্যে শরীরের মোটা হয়, কি ওষুধ খেলে শরীর মুটা করা যায় তারাতারি, কখন কি খেলে চেহারা হবে, ওজন বারানো উপায়, এক মাস খাবার না খেলে মোটা থেকে রোগা হয়, আমি মোটা হতে চাই কি কতে হবে, আমার বয়স ১৬। আমার স্বাস্থ্য খুব দুর্বল। আমি কি করতে পারি?, কি ভাবে সাস্থ, কিভাবে ওজন বাড়ান যায়?, বলারিষট, ওজন ভারানো উপাই, পেশি বারানোর নিম, পানি খেলে বডি বাডে, ছেলেদের মোটা হবার উপাই, ছেলেদের দেহ মোটা করতে প্রাকৃতিক উপায়, চিকন সাস্থ মোটা করার পদ্ধতি, খাওয়ার চাহিদা বাড়াবে কোন ওষধ, কী ভাবে ওজন বেশী হবে, কিভাবে মোটা হওয়া যায়, কিভাবে তাড়াতাড়ি মোটা হওয়া যায়, বেটনিলান ঔষধ

10 Comments

  1. সোহাগ March 1, 2015
  2. mithun March 5, 2015
  3. Masud rana April 10, 2015
  4. Masum Iqbal September 14, 2015
  5. jahid September 20, 2015
  6. Shafiq October 4, 2015
    • ফুন্ন অন্ন সঃই April 21, 2016
  7. Tanu October 23, 2015
  8. Hussain chy January 31, 2017
    • Afsana Spell February 1, 2017

Leave a Reply