ঝামেলাহীন আনন্দময় জীবন যাপনের ১০টি সহজ কৌশল

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে কত রকম ঝামেলার মাঝেই না কাটাতে হয় প্রতিনিয়ত। কাজের চাপ, টেনশন আর নানা সমস্যার মাঝে জীবন যেন একটি একটু করে মলিন হতে শুরু করে। সব আনন্দ হারিয়ে গিয়ে একঘেয়ে এক রুটিনে চলতে থাকে যান্ত্রিক জীবন। কিন্তু কিছু কৌশল অবলম্বণ করেই কিন্তু আপনি আপনার জীবনকে করে তুলতে পারেন রঙিন আর আনন্দময়। খুব কঠিন কিছু নয় এটা। প্রয়োজন কিছু সহজ অনুশীলন।

আনন্দময় জীবন

আনন্দময় জীবন

আপনারই জন্যে রইলো কিছু টিপস

১) বেশি বেশী হাসুন

হাসুন

বেশী বেশী হাসুন। এটা আপনার মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্য দুটোই ভালো রাখবে। এটি আপনার মনকে ভালো রাখার প্রাকৃতিক একটি উপায়। গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব মানুষ সকালে উঠে ৫ মিনিট হাসেন তারা সারা দিন বেশ ফুরফুরে মেজাজে থাকেন অন্যান্যদের চেয়ে।

২) যা ইচ্ছে করুন

জীবনটা অনেক ছোট্ট আর একেবারেই আপনার নিজস্ব। তাই মাঝে মাঝে নিজেকে স্বাধীনতা দিন। যা ইচ্ছে করুন। দৈনন্দিনতা থেকে ছুটি নিয়ে বেড়িয়ে আসুন, আড্ডা দিন, পছন্দমত শপিং করুন, এক কথায় যা খুশী করুন। এই আনন্দ আপনাকে জীবনে যত ঝামেলার চিন্তা ভাবনা ভুলিয়ে দেবে।

৩) বর্তমানে বাঁচুন

অতীতের দুঃসহ কোন স্মৃতি বুকে আঁকড়ে রেখে এখনো তিলে তিলে কষ্ট পাওয়াটা বোকামী। যা হয়ে গেছে তা এখন অতীত। তার চেয়ে বর্তমানে বাঁচুন। বর্তমানের আনন্দমুখরতায় নিজেকে সামিল করুন।

৪) জীবন নিয়ে দুশ্চিন্তা নয়

জীবন নিয়ে দুশ্চিন্তা নয়

জীবন নিয়ে দুশ্চিন্তা করে লাভ নেই। কাল কি হবে তার চেয়ে আজকের সময়টাকে উপভোগ করুন এবং নিজের কাজগুলো ঠিকভাবে করতে থাকুন যাতে এর ফল আপনি আগামীকাল পেতে পারেন। পরিকল্পনা করুন আগামীর। যাতে ভবিষ্যতে কোন সমস্যা হলেও আপনি নিজেকে স্বান্তনা দিতে পারেন যে, আপনি আপনার সামর্থ্যের সবটুকু করেছেন।

৫) বন্ধু বাছাই করুন বুঝে শুনে

বন্ধু

আপনার অনেক বন্ধু থাকতে পারে। কিন্তু এদের মাঝে কাছের বন্ধু বাছাই করুন সময় নিয়ে বুঝে শুনে। যারা বিপদে আপদে আপনার পাশে ছায়ার মত থাকবে। এরাই আপনাকে নানা মানসিক ও সামাজিক চাপ থেকে বেরিয়ে আসতে সাহায্য করবে।

৬) সম্পর্কগুলো ভাঙবেন না

একটা সম্পর্ক গড়ে তুলে সেটা ভালো একটা জায়গায় নিয়ে যাওয়া কিন্তু বেশ কঠিন। তাই চেষ্টা করুন কোন সম্পর্ক যাতে সহজে ভেঙে না যায়। প্রয়োজনে কিছুদিন সম্পর্ক থেকে দূরত্ব বজায় রাখুন।

৭) আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখুন

দৈনন্দিন জীবনের নানা বিক্ষিপ্ত ঘটনায় আপনি বিষণ্ণ হতে পারেন, রেগে যেতে পারেন বা আক্রান্ত হতে পারেন চরম হতাশায়। কিন্তু কোন কিছুই দীর্ঘস্থায়ী নয়। তাই চেষ্টা করুন আবেগগুলো প্রশমনের। কোথাও লিখে রাখুন আর চেষ্টা করুন সেই পরিস্থিতি থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকার।

৮) ইতিবাচক চিন্তা করুন

সারাদিনে কি কি বিষয় আপনার খারাপ লাগলো তার বদলে ভাবুন কি কি বিষয়ে আপনি আনন্দ পেয়েছেন। দেখবেন খারাপ লাগার চেয়ে ভালো লাগার পাল্লাটাই ভারী হয়ে আপনার মুখে ফুটে উঠেছে এক চিলতে হাসি।

৯) ক্ষমাশীল হোন

ক্ষমা করতে শিখুন। পৃথিবীর সব মানুষ আপনার পক্ষে থাকবে না। কারো কারো দ্বারা আপনি ক্ষতির শিকার হতে পারেন। চেষ্টা করুন ক্ষমা করার আর সেই সাথে বজায় রাখুন কিছুটা দূরত্ব। আপনি ভালো থাকবেন।

১০) বিশ্রাম নিন

গর্ভকালীন রক্তশূন্যতা

বিশ্রাম নিন। কাজের চাপ, পরিবারের জন্যে সময় সব বাদেও নিজের জন্যে খানিকটা সময় বের করুন। এ সময়টুকু কেবলই নিজের জন্যে। নিজেকে নিয়ে নিজের সময়টুকু উপভোগ করুন। সময় কাটান পোষা প্রানীটির সাথে, নিন স্পা বা ম্যাসাজ, লিখতে পারেন ডায়েরী বা নিয়ে নিন ছোট্ট একটি ন্যাপ (স্বল্প সময়ের ঘুম) এই বিশ্রাম আপনাকে নতুন উদ্যামে কাজ করতে সাহায্য করবে।

সাদাকালো জীবনে বুলিয়ে নিন আপনার পছন্দের রঙের পরশ। ভালোবাসুন নিজেকে, নিজের জীবনকে। জীবনকে উপভোগের সময় তো এখনই!

 

আরো অনেকে খুজেছে

    সহজ জীবন
সাইটের প্রকাশিত কোনো পোস্ট অন্য কোথাও প্রকাশ করলে অবশ্যই আমার হেল্থ বাংলা ডট কম (Healthbangla.com) এর কথা সুস্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করতে হবে। বিনা অনুমতিতে  হেল্থ বাংলা- এর কন্টেন্ট ব্যবহার আইনগত অপরাধ, যে কোন ধরনের কপি-পেস্ট কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, এবং কপিরাইট আইনে বিচার যোগ্য!

About the Author

Afsana Spell

আমি আফসানা। Health Bangla ডট কম এর একজন লেখক। পেশায় MBBS Doctor। বর্তমানে Internship শেষ করে Training এ আছি। আমাকে আপনার সমস্যার কথা লিখে পাঠান afsanaspell@gmail.com ইমেইল এ।

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!